• English
  • বাংলা
  • Requirements for a new Machine Readable Passport (MRP) [ Hand written passport to MRP]

    Any Bangladesh citizen who has valid hand written passport/ Machine Readable Passport (MRP) can apply Bangladesh Embassy in Berlin for new MRP (Machine Readable Passport). The following things are required:

    1. Filled-in MRP Online Application Form (with bar code) printed copy
    2. Online Appointment for MRP to give biometric data (finger print) printed copy
    3. 01 (one) copy recent passport size photograph
    4. 01 (one) set photocopy of existing valid Bangladesh Passport (1-5 page for hand written and 1-2 page for MRP) and original valid Bangladesh Passport
    5. Photocopy of applicant’s National ID Card or Digital Birth Certificate (with 17-digit number)
    6. Copy of valid Student ID card (If anyone wants student discount; only for students with valid student ID card) and original student ID card
    7. Proof of payment for MRP to Embassy Bank Account [Copy of Bank transfer slip/Überweisung Euro 110,- normal; Euro 35,- for student discount only for college and university student] (Embassy Bank Account details: Embassy of Bangladesh: Deutsche Bank, BLZ:100700 00, Account No:060 7788, IBAN: DE 21 1007 0000 0060 7788 00, BIC (Swift code): DEUTDEBBXXX)]

    Important Note:

    Please make an online appointment to give biometric data (finger print, digital photo, digital signature etc) at the Embassy to complete your MRP process. Please come to Embassy with all documents (serial number: 1-7 as stated above) in your hand according to your online appointment schedule.

    Bangladesh Embassy in Berlin only process Machine Readable Passport (MRP) applications but the printed MRP comes from Dhaka. So, it requires usually 6-8 weeks (sometimes more than that) to get MRP after successful bio-enrolment (digital photo, thumb print, signature etc.) at the Embassy.

    Kindly note that Hand Written Application Form for MRP is not acceptable.

    MRP Online Application

  • নতুন মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) গ্রহনের জন্য (হাতে লেখা পাসপোর্ট হতে এমআরপি করার জন্য) প্রয়োজনীয়

    যে সকল বাংলাদেশী নাগরিকদের সচল/বৈধ বাংলাদেশী হাতে লেখা পাসপোর্ট এবং সচল মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি)রয়েছে, তারা বাংলাদেশ দূতবাস এর মাধ্যমে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) এর আবেদন সম্পন্ন করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে তাদের ১৭ ডিজিটের বাংলাদেশী ডিজিটাল জম্ননিবন্ধন সনদপত্র অথবা ভোটার আইডি কাড সংগ্রহ করতে হবে। বাংলাদেশী নাগরিকদের মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) গ্রহনের জন্য নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে:

    ১) অনলাইনে এমআরপি আবেদন ফরম(www.passport.gov.bd) পূরণ করতে হবে এবং পূরণকৃত আবেদন ফরম-এর  একটি কপি (বার কোড সম্বলিত) প্রিন্ট করতে হবে;

    ২) বাংলাদেশ দূতাবাস বার্লিন-এ ফটো এবং ফিঙ্গার প্রিন্ট প্রদানের জন্য অনলাইন এ্যাপয়ন্টমেন্ট গ্রহন করতে হবে;

    ৩) আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের (৫৫ x ৪৫ মিমি) ১ কপি রঙিন ছবি লাগবে;

    ৪) আবেদনকারীর (১৭ ডিজিট সম্বলিত) বাংলাদেশী ডিজিটাল জম্ননিবন্ধন সনদপত্র অথবা ভোটার আইডি কাড এর এক কপি লাগবে;

    ৫) আবেদনকারীর অরিজিনাল সচল/বৈধ বাংলাদেশ পাসপোর্ট এবং পাসপোর্টর ফটোকপি (হাতে লেখা পাসপোর্ট-এর ১-৫ পৃষ্ঠা/ মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট এর ১-৪ পৃষ্ঠা) লাগবে;

    ৬)আবেদনকারী ছা্ত্র হিসেবে ফি এর ডিসকাউন্ট পেতে চাইলে বর্তমান সচল স্টুডেন্ট আইডি কার্ড-এর অরিজিনাল কপি এবং একটি ফটোকপি লাগবে;

    ৭) দূতাবাসের ব্যাংক একাউন্টে ১১০ ইউরো (সাধারণ ফি – সকলের জন্য) অথবা ৩৫ ইউরো (ডিসকাউন্ট ফি – যাদের সচল স্টুডেন্ট আইডি কার্ড রয়েছে) প্রেরণ/ জমা করার প্রমান সম্বলিত ডকুমেন্ট লাগবে

    ৭) ডাকটিকিট যুক্ত এবং নিজের নাম-ঠিকানা লিখিত একটি ফেরত খাম (এর মধ্যে এমআরপি আবেদনের ডেলিভারী স্লিপ/ ইনরোলমেন্ট নম্বর সম্বলিত ডকুমেন্ট প্রেরণ করা হবে।)

    বিশেষ দ্রষ্টব্য:

    বাংলাদেশ দূতাবাস, বার্লিন-এ বায়োমেট্রিক ডাটা (ফিঙ্গার প্রিন্ট, ডিজাটাল ছবি, স্বাক্ষর ইত্যাদি) প্রদানের জন্য অনলাইনে এ্যাপয়ন্টমেন্ট গ্রহন করতে হবে এবং এ্যাপয়ন্টমেন্ট-এর তরিখ ও সময় অনুসারে উপরে বর্ণিত (১-৭ নম্বর) ডকুমেন্ট সহ দূতাবাসে উপস্থিত হতে হবে।

    বাংলাদেশ দূতাবাস্ কোন এমআরপি প্রিন্ট করে না, সকল এমআরপি ঢাকা হতে পিন্ট হয়ে বার্লিনে আসার পর দূতাবাস আবেদনকারীকে প্রদান করে। বাংলাদেশ দূতাবাস শুধুমাত্র এমআরপি আবেদনের বায়োমেট্রিক ডাটা (ফিঙ্গার প্রিন্ট, ডিজাটাল ছবি, স্বাক্ষর ইত্যাদি)গ্রহনের মাধ্যমে ডিআইপি- ঢাকায় এমআরপি আবেদন অনলাইনে প্রেরণ করে। এক্ষেত্রে সফলভাবে দূতাবাসে বায়োমেট্রিক ডাটা (ফিঙ্গার প্রিন্ট, ডিজাটাল ছবি, স্বাক্ষর ইত্যাদি)প্রদানের পর এমআরপি ঢাকা হতে প্রিন্ট হয়ে বার্লিনে আসতে সাধারনত প্রায় ৬-৮ সপ্তাহ সময় লাগে (অনেক ক্ষেত্রে বেশী সময় লাগতে পারে)। সম্মানিত আবেদনকারীগণকে হাতে যথেস্ট সময় রেখে এমআরপি আবেদন করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে।

    হাতে লেখা আবেদন ফরম গ্রহণযোগ্য নয়।